• শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০৪:২২ পূর্বাহ্ন

সিলেটে ১ লাখ ১৬ হাজার ২৪৯ জন বিদ্যুৎ গ্রাহক প্রি-পেমেন্ট মিটারের আওতায় আসছেন

Dev Farhad / ৩৪৪৮ Time View
Update : সোমবার, ২৯ জানুয়ারী, ২০২৪

সিলেটে ১ লাখ ১৬ হাজার ২৪৯ জন বিদ্যুৎ গ্রাহক প্রি-পেমেন্ট মিটারের আওতায় আসছেন

আবুল কাশেম রুমন,সিলেট: সিলেট নগরীতে গত কয়েক মাস থেকে ব্যাপক আলোচনা ও সমালোচানর ঝড় উঠে বিদ্যুত ও গ্যাসের প্রিপেমেন্ট মিটার  নিয়ে। সেই প্রকল্পগুলো কাজ ইতোমধ্যে নগরীর অধিকাংশ বাসা বাড়িতে প্রয়োগ করা হয়েছে। এবার সিলেট নগরীসহ ও আশপাশের আরো ১ লাখ ১৬ হাজার ২৪৯ জন বিদ্যুৎ গ্রাহক প্রি-পেমেন্ট মিটারের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে।  ফেব্রুয়ারী মাসের শেষ দিকে এ সব মিটার স্থাপনের কার্যক্রম শুরু হবে। স্মার্ট প্রিপেইড মিটারিং প্রজেক্ট ইন ডিস্ট্রিবিউশন অব বিপিডিবি এ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করবে। চলতি বছরের মধ্যে বিনামূল্যে গ্রাহকদের মিটার পরিবর্তনের কাজ সম্পন্ন হবে। প্রকল্প পরিচালক  মো. মোজাহারুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা জানান, প্রি- পেমেন্ট মিটার স্থাপনের অন্যতম উদ্দেশ্য হচ্ছে, বিদ্যুতের অপচয় রোধ এবং এর শতভাগ ব্যবহার নিশ্চিত করা। সরকার পর্যায়ক্রমে দেশের সকল বিদ্যুৎ গ্রাহককে প্রি-পেমেন্ট মিটারের আওতায় আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এ ধারাবাহিকতায় ২০০৫ এবং ২০০৯ সালে সিলেট নগরীর বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-২ এর গ্রাহকদের প্রি- পেমেন্ট মিটারের আওতায় আনা হয়। তবে, বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-১, ৩ এবং ৪ এর বাইরে ছিল।
এ বিষয়টিকে মাথায় রেখে বিদ্যুতের ওই তিনটি বিতরণ বিভাগকে সামনে আনা হয়। সে অনুযায়ী বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-১ এর ৬৩ হাজার ৩১৩, বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-৩ এর ৩৫ হাজার ৯৭৫ এবং বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-৪ এর ১৬ হাজার ৯৬১ জন গ্রাহকের মিটার পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত হয়। প্রকল্প পরিচালক মো.  মোজাহারুল ইসলাম জানান, পরবর্তী ধাপে এ প্রক্রিয়া আরো সম্প্রসারিত করা হবে।
বিউবো সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানিয়েছে, ২০১৮ সালে সিলেট অঞ্চলের আরো কয়েকটি ইলেকট্রিক সাপ্লাই(বিদ্যুৎ সঞ্চালন) লাইন প্রি-পেমেন্ট মিটারের আওতায় আনার সম্ভাব্যতা যাচাই হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে সিলেটের জৈন্তাপুর, সুনামগঞ্জ, দিরাই, জগন্নাথপুর, ছাতক, হবিগঞ্জ, কুলাউড়া এবং মৌলভীবাজার। এর মধ্যে কয়েকটিতে প্রি- পেমেন্ট মিটার সংযোজন হয়েছে।
বিউবো বিতরণ বিভাগ-১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী তানভীর হায়দার জানান, সবচেয়ে বেশী গ্রাহক তার আওতাধীন এলাকায় প্রি- পেমেন্ট মিটারে অন্তর্ভুক্ত হচ্ছেন। এতে গ্রাহক সেবার বিষয়টি আরো গতিশীল হবে বলে মনে করেন তিনি।
বিউবো বিতরণ বিভাগ-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী শামছ-ই আরেফিন জানান, বিতরণ বিভাগ-২ এর আওতাভুক্ত প্রায় ৯৫ ভাগ গ্রাহক প্রি- পেমেন্ট মিটারে বিদ্যুৎ সেবা গ্রহণ করছেন।
বিউবো বিতরণ বিভাগ-৩ এর নির্বাহী প্রকৌশলী শ্যামল চন্দ্র সরকার জানান, প্রি-পেমেন্ট মিটার ব্যবহার নিয়ে মানুষের মাঝে আগ্রহ রয়েছে। বিতরণ বিভাগ-৩ এর আওতাধীন জগন্নাথপুরের অধিকাংশ গ্রাহক ইতোমধ্যে প্রি- পেমেন্ট মিটার ব্যবহার করছেন বলেও জানান তিনি।
বিউবো বিতরণ বিভাগ-৪ এর নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বিতরণ বিভাগ-৪ এর আওতায় প্রায় ৩৫ হাজার গ্রাহক রয়েছেন। অর্ধেক অংশ প্রি-পেমেন্ট মিটারের আওতায় এলে সেবার পরিধি আরো বিস্তৃত হবে বলে জানান তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর